বাইক এক্সিডেন্ট, সচেতন হোন

0

 

আব্দুর রহমান আল হাসান

আজকাল উঠতি বয়সের ছেলেদের প্রথম আবদার, বাবা বাইক কিনে দাও না কিনে দিলে রাগারাগি এবং অসন্তুষ্টিমূলক আচরণের কারণে বাবা-মা কিনে দিতে বাধ্য হন কিন্তু বাস্তবে একটি বাইক এসব যুবকদের কোন পথে নিয়ে যায়? আজকাল আমরা মিডিয়া, পত্র-পত্রিকার কল্যানে সারা দেশের খবর নিমিষেই জানতে পারি রোডে রোডে বাইক এক্সিডেন্টের খবর আজ নতুন নয় বহু আগ থেকেই অস্বাভাবিক স্টাইলিং এর কারণে প্রাণ হারিয়েছে অনেক যুবকরা যারা তাদের মা-বাবার নিকট আশার প্রদীপ ছিল তাদের নিয়ে মা-বাবা অনেক স্বপ্ন দেখতো এই দোষ শুধু যুবকদের নয়, আমাদের অসচেতনের কারণেও কখনো কখনো এসব এক্সিডেন্ট ঘটে এই কথার প্রেক্ষিতে একটা ঘটনা বলিগত ৩ই সেপ্টেম্বর ২০২০ নোয়াখালীর রাইপুর উপজেলায় বাইক এক্সিডেন্টে প্রাণ হারায় আমার ফুফাতো ভাই মোঃ ইউনুস (আল্লাহ তাকে জান্নাত নসীব করুন) এক্সিডেন্টটা হয় মাথায় আঘাত লেগে আর ভাইয়া এমন সময় মৃত্যুবরণ করেছেন, যখন তার একটি বিশেষ দিন সামনে ছিল ভাইয়া একটি ব্যাংকে কর্মরত ছিলেন গত ৭ই সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে তার এক সন্তান দুনিয়াতে আসে যেই সন্তানের জন্মের দিন আগে তার বাবা ইন্তিকাল করেছেন যখন তার বুঝও হয় নি মৃত্যু কি, সে জানেও না সেই সন্তান চিরতরে বাবার আদর স্নেহ থেকে বঞ্চিত হলো

আপনি সেই মায়ের ব্যাপারে ভাবুন, যার স্বামী মারা গিয়েছে সন্তান জন্মের ৪দিন পূর্বে এমন পরিস্থিতিতে উক্ত মায়ের জন্য পৃথিবী কতটা সংকীর্ণ, তা তিনিই একমাত্র ভালো বুঝবেন এটা হলো উদাহরণস্বরুপ একটি সত্য ঘটনা এখন কথা হলো আমরা যে বাইক ব্যবহার করি, তা কতুটুকু প্রয়োজন?

বাইকের প্রয়োজনীয়তা অস্বীকার করা যায় না কিন্তু বাইক চালানোর সময় যদি আমরা কিছু বিষয় সম্পর্কে সতর্কতা অবলম্বন করি তাহলে আমরা কিছুটা হলেও লাভবান হবো সর্বপ্রথম যেই বিষয়টা জরুরি তা হলো, হেলমেট ব্যবহার করা কেউ যদি হেলমেট ব্যবহার না করে বাইক চালায়, তাহলে ছোটখাটো এক্সিডেন্টেও তার নির্ঘাত মৃত্যু হতে পারে দ্বিতীয়ত বাইকের স্প্রিট নিয়ন্ত্রণে রাখা অগোছালোভাবে বাইক না চালানো তৃতীয়ত সেফটির জন্য সর্বদা হাতে-পায়ে গ্লাফস ব্যবহার করা

 

(এই লেখাটি লিখেছিলাম ০৪/০৯/২০২০ তারিখে)

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0মন্তব্যসমূহ
একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)

#buttons=(আমি সম্মত !) #days=(20)

আসসালামু আলাইকুম, আশা করি আপনি ভালো আছেন। আমার সম্পর্কে আরো জানুনLearn More
Accept !